টুল ও পরামর্শ ব্যবহার করে অনলাইনে সুরক্ষিত থাকার ব্যাপারে
সাহায্য পান।

ইন্ডাস্ট্রির সবচেয়ে উন্নত নিরাপত্তা ব্যবস্থার মাধ্যমে আপনার গোপনীয়তা সুনিশ্চিত করতে অটোমেটিক সুরক্ষা প্রদান করা হয়। আপনার অনলাইন সুরক্ষা ম্যানেজ করতে কিছু অতিরিক্ত ধাপ গ্রহণ করতে পারেন এবং আপনার জন্য সঠিক লেভেলের সুরক্ষা বেছে নিতে পারেন।

আপনার Google অ্যাকাউন্টের
সুরক্ষা আরও শক্তিশালী করুন

নিরাপত্তা যাচাই

'নিরাপত্তা যাচাই' টুল ব্যবহার করুন

আপনার Google অ্যাকাউন্ট সুরক্ষিত রাখার একটি সহজ উপায় হল 'নিরাপত্তা যাচাই' টুল ব্যবহার করা। এই টুল প্রক্রিয়ার ধাপে ধাপে আপনার Google অ্যাকাউন্টের নিরাপত্তা আরও শক্তিশালী করার জন্য পছন্দমতো ও কার্যকরী সাজেশন প্রদান করে।

২-ধাপে যাচাইকরণ

'২-ধাপে যাচাইকরণ' প্রক্রিয়া ব্যবহার করে হ্যাকারদের থেকে নিজেকে সুরক্ষিত রাখুন

'২-ধাপে যাচাইকরণ' ফিচারের নিয়ম অনুসারে, অ্যাকাউন্টে লগ-ইন করার জন্য ব্যবহারকারীর নাম ও পাসওয়ার্ড ছাড়াও আপনাকে একটি সেকেন্ডারি ফ্যাক্টর ব্যবহার করতে হয়। এর ফলে, আপনার অ্যাকাউন্টে লগ-ইন করার অধিকার নেই এমন কাউকে সেটি অ্যাক্সেস করা থেকে দূরে রাখা যায়। যাদের উপর নির্দিষ্ট টার্গেট করে অনলাইনে আক্রমণ হওয়ার আশঙ্কা থাকে এবং সেই কারণে যাদের আরও শক্তিশালী সুরক্ষার প্রয়োজন হয়, তাদের জন্য আমরা উন্নত সুরক্ষা প্রোগ্রাম তৈরি করেছি।

আপনার পাসওয়ার্ড সংক্রান্ত সমস্যার ব্যাপারে সামান্য সাহায্য

শক্তিশালী ও অনন্য পাসওয়ার্ড ব্যবহার করুন

গোপনীয়তা সুরক্ষিত করার জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ যে ধাপগুলি আপনি গ্রহণ করেন, তার মধ্যে একটি হল প্রতিটি অ্যাকাউন্টের জন্য একটি শক্তিশালী, অনন্য পাসওয়ার্ড তৈরি করা। Google অ্যাকাউন্ট, সোশ্যাল মিডিয়া প্রোফাইল ও রিটেল ওয়েবসাইটের মতো একাধিক অ্যাকাউন্টে একই পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে লগ-ইন করলে আপনার নিরাপত্তা বিঘ্নিত হতে পারে।

আপনার সব পাসওয়ার্ড ট্র্যাক করুন

বিভিন্ন সাইট ও অ্যাপে আপনি যেসব পাসওয়ার্ড ব্যবহার করেন তা সুরক্ষিত রাখতে এবং ট্র্যাক করতে পাসওয়ার্ড ম্যানেজার সাহায্য করে। আপনার Google অ্যাকাউন্টে এই ধরনেরই একটি পাসওয়ার্ড ম্যানেজার তৈরি করা আছে। অ্যাকাউন্টে নিরাপদে ও সহজে সাইন-ইন করার জন্য Google-এর পাসওয়ার্ড ম্যানেজার আপনার সব পাসওয়ার্ড তৈরি করতে, মনে রাখতে ও নিরাপদে সেভ করে রাখতে সাহায্য করে।

আপনার পাসওয়ার্ড চেক করুন তাতে নিরাপত্তা সংক্রান্ত কোনও সমস্যা আছে কিনা

পাসওয়ার্ড চেকআপ ফিচারের সাহায্যে আপনার সেভ করা সব পাসওয়ার্ড কতটা মজবুত ও নিরাপদ তা ঝটপট চেক করুন। থার্ড-পার্টি সাইট বা অ্যাকাউন্টের জন্য আপনার সেভ করে রাখা পাসওয়ার্ডগুলির মধ্যে কোনওটি চুরি হয়েছে কিনা তা জানুন এবং প্রয়োজনে সেগুলি সহজেই পরিবর্তন করুন।

শক্তিশালী ও অনন্য পাসওয়ার্ড ব্যবহার করুন

গোপনীয়তা সুরক্ষিত করার জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ যে ধাপগুলি আপনি গ্রহণ করেন, তার মধ্যে একটি হল প্রতিটি অ্যাকাউন্টের জন্য একটি শক্তিশালী, অনন্য পাসওয়ার্ড তৈরি করা। Google অ্যাকাউন্ট, সোশ্যাল মিডিয়া প্রোফাইল ও রিটেল ওয়েবসাইটের মতো একাধিক অ্যাকাউন্টে একই পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে লগ-ইন করলে আপনার নিরাপত্তা বিঘ্নিত হতে পারে।

আপনার সব পাসওয়ার্ড ট্র্যাক করুন

বিভিন্ন সাইট ও অ্যাপে আপনি যেসব পাসওয়ার্ড ব্যবহার করেন তা সুরক্ষিত রাখতে এবং ট্র্যাক করতে পাসওয়ার্ড ম্যানেজার সাহায্য করে। আপনার Google অ্যাকাউন্টে এই ধরনেরই একটি পাসওয়ার্ড ম্যানেজার তৈরি করা আছে। অ্যাকাউন্টে নিরাপদে ও সহজে সাইন-ইন করার জন্য Google-এর পাসওয়ার্ড ম্যানেজার আপনার সব পাসওয়ার্ড তৈরি করতে, মনে রাখতে ও নিরাপদে সেভ করে রাখতে সাহায্য করে।

আপনার পাসওয়ার্ড চেক করুন তাতে নিরাপত্তা সংক্রান্ত কোনও সমস্যা আছে কিনা

পাসওয়ার্ড চেকআপ ফিচারের সাহায্যে আপনার সেভ করা সব পাসওয়ার্ড কতটা মজবুত ও নিরাপদ তা ঝটপট চেক করুন। থার্ড-পার্টি সাইট বা অ্যাকাউন্টের জন্য আপনার সেভ করে রাখা পাসওয়ার্ডগুলির মধ্যে কোনওটি চুরি হয়েছে কিনা তা জানুন এবং প্রয়োজনে সেগুলি সহজেই পরিবর্তন করুন।

Google-এর পাসওয়ার্ড ম্যানেজার সম্পর্কে আরও জানুন
আপনার ডিভাইসকে সুরক্ষিত রাখুন।
ওয়েব নিরাপদে ব্রাউজ করুন।
কানেকশন সুরক্ষিত বলে একটি বিজ্ঞপ্তি ফোনে দেখানো হচ্ছে
অনলাইন স্ক্যাম ও ফিশিংয়ের প্রচেষ্টার
হাত থেকে বাঁচুন

জানুন কী কী উপায়ে স্ক্যামার আপনার কাছে পৌঁছাতে পারে

স্ক্যামারের মেসেজ বিশ্বস্ত মেসেজের ছদ্মবেশে এমনভাবে পাঠানো হয় যাতে তারা বিশ্বস্ত হওয়ার খ্যাতির সুযোগ গ্রহণ করে থাকে। ইমেল ছাড়াও, স্ক্যামার টেক্সট মেসেজ, অটোমেটেড কল ও ক্ষতিকর ওয়েবসাইট ব্যবহার করেও আপনাকে ঠকাতে পারে।

সন্দেহজনক URL বা লিঙ্ক সবসময় যাচাই করে নিন

ফিশিং হল এমন এক প্রচেষ্টা যেখানে আপনাকে ভুল বুঝিয়ে আপনার পাসওয়ার্ড বা ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের মতো গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিগত বা ফাইন্যান্সিয়াল তথ্য জানার চেষ্টা করা হয়। বিভিন্ন উপায়ে ফিশিং করা হতে পারে, যেমন, কোনও ভুয়ো লগ-ইন পৃষ্ঠা। ফিশিংয়ের হাত থেকে বাঁচতে, বিশ্বাসযোগ্য নয় এমন কোনও লিঙ্কে ক্লিক করবেন না, লিঙ্কের উপরে মাউসের সাহায্যে হোভার করে বা মোবাইলে টেক্সটটি অনেকক্ষণ ধরে প্রেস করে রেখে — URL দ্বিতীয়বার চেক করে দেখুন — যাতে আপনি নিশ্চিত হতে পারেন যে সেই ওয়েবসাইট বা অ্যাপটি বিশ্বস্ত এবং এটি ভাল করে দেখে নিন, URL যেন "https" দিয়ে শুরু হয়।

ছদ্মবেশীদের থেকে সতর্ক থাকুন

স্ক্যামার কোনও সরকারি বা অলাভজনক সংস্থার মতো করে কোনও আইনসম্মত সংস্থার ছদ্মবেশ ধারণ করতে পারে। কোনও মেসেজ প্রেরণকারী মেসেজের মধ্যে নিজেকে অথরিটেটিভ রিসোর্স বলে দাবি করলে, সব সময় সেই সব মেসেজের ব্যবহারে অতিরিক্ত সাবধানতা অবলম্বন করুন। আপনার চেনা কোনও ব্যক্তির থেকে কোনও অস্বাভাবিক ইমেল পেলে, এটি সম্ভব হতে পারে যে তার ইমেল অ্যাকাউন্ট হ্যাক করা হয়েছে। সেই ইমেল যতক্ষণ না স্প্যাম নয় বলে কনফার্ম করা হচ্ছে, ততক্ষণ সেই ইমেল মেসেজের উত্তর দেবেন না বা এমন কোনও লিঙ্কে ক্লিক করবেন না। কেউ অতি সত্ত্বর টাকা পাঠানোর অনুরোধ করছেন, বিদেশে সহায়-সম্বলহীন কোনও ব্যক্তির করুণ কাহিনী বা কোনও ব্যক্তি দাবি করছেন যে তার ফোন চুরি হয়ে গেছে এবং তাতে কল করা যাচ্ছে না - এমন মেসেজ পেলে চট করে বিশ্বাস করবেন না।

ইমেল স্ক্যাম বা ব্যক্তিগত তথ্য চেয়ে অনুরোধের ব্যাপারে সাবধান থাকুন

কোনও অপরিচিত ব্যক্তির থেকে পাওয়া মেসেজ সন্দেহজনক হতে পারে এবং এমনকি ব্যাঙ্কের মতো যাকে আপনি বিশ্বাস করেন, তার থেকে পাওয়া মেসেজের মাধ্যমেও ছদ্মবেশী হ্যাকার আপনার অ্যাকাউন্টের তথ্য জানার চেষ্টা করতে পারে। কোনও সন্দেহজনক ইমেল, ইনস্ট্যান্ট মেসেজ বা ব্যক্তিগত তথ্য জানতে চাওয়া কোনও পপ-আপ উইন্ডোর প্রশ্নের উত্তর দেবেন না। কোনও সন্দেহজনক লিঙ্কে ক্লিক করবেন না এবং বিশ্বাসযোগ্য মনে না হওয়া এমন কোনও ফর্ম বা সার্ভেতে ব্যক্তিগত তথ্য লিখবেন না। কোনও অলাভজনক সংস্থাতে ডোনেট করতে হলে, সরাসরি সেই সংস্থার ওয়েবসাইটে গিয়ে ডোনেট করুন, আপনাকে পাঠানো কোনও লিঙ্কে ক্লিক করে ডোনেট করতে যাবেন না।

কোনও ফাইল ডাউনলোড করার আগে আরও একবার চেক করে দেখে নিন

কিছু আধুনিক ফিশিং আক্রমণ ম্যালওয়্যার থাকা ডকুমেন্ট এবং PDF অ্যাটাচমেন্টের মাধ্যমেও আসতে পারে। কোনও সন্দেহজনক অ্যাটাচমেন্ট পেলে, Chrome বা Google Drive ব্যবহার করে সেটি খুলুন। আমরা ফাইলটি অটোমেটিক স্ক্যান করি এবং কোনও ভাইরাস শনাক্ত করলে আপনাকে তার জন্য সতর্ক করে দিই।

জানুন কী কী উপায়ে স্ক্যামার আপনার কাছে পৌঁছাতে পারে

স্ক্যামারের মেসেজ বিশ্বস্ত মেসেজের ছদ্মবেশে এমনভাবে পাঠানো হয় যাতে তারা বিশ্বস্ত হওয়ার খ্যাতির সুযোগ গ্রহণ করে থাকে। ইমেল ছাড়াও, স্ক্যামার টেক্সট মেসেজ, অটোমেটেড কল ও ক্ষতিকর ওয়েবসাইট ব্যবহার করেও আপনাকে ঠকাতে পারে।

সন্দেহজনক URL বা লিঙ্ক সবসময় যাচাই করে নিন

ফিশিং হল এমন এক প্রচেষ্টা যেখানে আপনাকে ভুল বুঝিয়ে আপনার পাসওয়ার্ড বা ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের মতো গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিগত বা ফাইন্যান্সিয়াল তথ্য জানার চেষ্টা করা হয়। বিভিন্ন উপায়ে ফিশিং করা হতে পারে, যেমন, কোনও ভুয়ো লগ-ইন পৃষ্ঠা। ফিশিংয়ের হাত থেকে বাঁচতে, বিশ্বাসযোগ্য নয় এমন কোনও লিঙ্কে ক্লিক করবেন না, লিঙ্কের উপরে মাউসের সাহায্যে হোভার করে বা মোবাইলে টেক্সটটি অনেকক্ষণ ধরে প্রেস করে রেখে — URL দ্বিতীয়বার চেক করে দেখুন — যাতে আপনি নিশ্চিত হতে পারেন যে সেই ওয়েবসাইট বা অ্যাপটি বিশ্বস্ত এবং এটি ভাল করে দেখে নিন, URL যেন "https" দিয়ে শুরু হয়।

ছদ্মবেশীদের থেকে সতর্ক থাকুন

স্ক্যামার কোনও সরকারি বা অলাভজনক সংস্থার মতো করে কোনও আইনসম্মত সংস্থার ছদ্মবেশ ধারণ করতে পারে। কোনও মেসেজ প্রেরণকারী মেসেজের মধ্যে নিজেকে অথরিটেটিভ রিসোর্স বলে দাবি করলে, সব সময় সেই সব মেসেজের ব্যবহারে অতিরিক্ত সাবধানতা অবলম্বন করুন। আপনার চেনা কোনও ব্যক্তির থেকে কোনও অস্বাভাবিক ইমেল পেলে, এটি সম্ভব হতে পারে যে তার ইমেল অ্যাকাউন্ট হ্যাক করা হয়েছে। সেই ইমেল যতক্ষণ না স্প্যাম নয় বলে কনফার্ম করা হচ্ছে, ততক্ষণ সেই ইমেল মেসেজের উত্তর দেবেন না বা এমন কোনও লিঙ্কে ক্লিক করবেন না। কেউ অতি সত্ত্বর টাকা পাঠানোর অনুরোধ করছেন, বিদেশে সহায়-সম্বলহীন কোনও ব্যক্তির করুণ কাহিনী বা কোনও ব্যক্তি দাবি করছেন যে তার ফোন চুরি হয়ে গেছে এবং তাতে কল করা যাচ্ছে না - এমন মেসেজ পেলে চট করে বিশ্বাস করবেন না।

ইমেল স্ক্যাম বা ব্যক্তিগত তথ্য চেয়ে অনুরোধের ব্যাপারে সাবধান থাকুন

কোনও অপরিচিত ব্যক্তির থেকে পাওয়া মেসেজ সন্দেহজনক হতে পারে এবং এমনকি ব্যাঙ্কের মতো যাকে আপনি বিশ্বাস করেন, তার থেকে পাওয়া মেসেজের মাধ্যমেও ছদ্মবেশী হ্যাকার আপনার অ্যাকাউন্টের তথ্য জানার চেষ্টা করতে পারে। কোনও সন্দেহজনক ইমেল, ইনস্ট্যান্ট মেসেজ বা ব্যক্তিগত তথ্য জানতে চাওয়া কোনও পপ-আপ উইন্ডোর প্রশ্নের উত্তর দেবেন না। কোনও সন্দেহজনক লিঙ্কে ক্লিক করবেন না এবং বিশ্বাসযোগ্য মনে না হওয়া এমন কোনও ফর্ম বা সার্ভেতে ব্যক্তিগত তথ্য লিখবেন না। কোনও অলাভজনক সংস্থাতে ডোনেট করতে হলে, সরাসরি সেই সংস্থার ওয়েবসাইটে গিয়ে ডোনেট করুন, আপনাকে পাঠানো কোনও লিঙ্কে ক্লিক করে ডোনেট করতে যাবেন না।

কোনও ফাইল ডাউনলোড করার আগে আরও একবার চেক করে দেখে নিন

কিছু আধুনিক ফিশিং আক্রমণ ম্যালওয়্যার থাকা ডকুমেন্ট এবং PDF অ্যাটাচমেন্টের মাধ্যমেও আসতে পারে। কোনও সন্দেহজনক অ্যাটাচমেন্ট পেলে, Chrome বা Google Drive ব্যবহার করে সেটি খুলুন। আমরা ফাইলটি অটোমেটিক স্ক্যান করি এবং কোনও ভাইরাস শনাক্ত করলে আপনাকে তার জন্য সতর্ক করে দিই।

অনলাইনে আরও কত ভাবে আমরা
আপনাকে নিরাপদ রাখি, তা দেখুন।